পরীক্ষায় ভালো নম্বর পেতে কীভাবে লিখতে হয় তার কৌশল Teacj Sanjib

পরীক্ষায় ভালো নম্বর পেতে কীভাবে লিখতে হয় তার কৌশল Teacj Sanjib

পরীক্ষায় ভালো নম্বর পাওয়ার কৌশল

পরীক্ষায় ভালো নম্বর পাওয়ার উপায়

পরীক্ষায় ভালো নম্বর

পরীক্ষায় ভালো নম্বর পেতে এখানে কিছু টিপস রয়েছে যা আপনাকে আপনার ভাল নম্বর পেতে সাহায্য করতে পারে:

পরীক্ষায়-ভালো-নম্বর-পেতে-কীভাবে-লিখতে-হয়-তার-কৌশল-Teacj-Sanjib

পরীক্ষায় ভালো নম্বর:আগে থেকেই ভালোভাবে পড়াশুনা শুরু করুন:

 

১) আগে থেকেই ভালোভাবে পড়াশুনা শুরু করুন: শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত পড়াশোনা ছেড়ে দেবেন না। পরিবর্তে, এটিকে দীর্ঘ সময়ের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করুন যাতে আপনার উপাদানটি পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পর্যালোচনা করার সময় থাকে।

২) আপনার নোটগুলি নিয়মিত পর্যালোচনা করুন:

নিয়মিতভাবে আপনার নোটগুলি পর্যালোচনা করা আপনাকে তথ্য ধরে রাখতে এবং পরীক্ষায় আরও সহজে স্মরণ করতে সহায়তা করবে।

৩) পূর্ববর্তী পরীক্ষার অনুশীলন করুন: অনেক স্কুল এবং বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের জন্য পূর্ববর্তী পরীক্ষাগুলি উপলব্ধ করে। পরীক্ষায় হতে পারে এমন প্রশ্নের ধরন সম্পর্কে ধারণা পাওয়ার জন্য এবং আপনার জ্ঞান পরীক্ষা করার জন্য এগুলি একটি দুর্দান্ত সংস্থান হতে পারে।

৪) বিরতি নিন: অধ্যয়নের সময় বিরতি নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ যাতে আপনি বিশ্রাম নিতে পারেন এবং রিচার্জ করতে পারেন। এটি আপনাকে ফোকাস থাকতে এবং বার্নআউট এড়াতে সাহায্য করবে।

৫) রাতে ভালো ঘুম : পরীক্ষার আগের রাতে পর্যাপ্ত ঘুম নিশ্চিত করুন। একটি ভাল বিশ্রামরত মস্তিষ্ক তথ্য ধরে রাখতে এবং স্মরণ করতে আরও ভাল সক্ষম।

৬) পরীক্ষার সময় মনোযোগী থাকুন: পরীক্ষার সময় শান্ত ও মনোযোগী থাকার চেষ্টা করুন। আপনি যদি এমন একটি প্রশ্নের সম্মুখীন হন যার উত্তর আপনি জানেন না, এটি এড়িয়ে যান এবং পরে এটিতে ফিরে আসুন। কোনো একটি প্রশ্নে বেশি সময় নষ্ট করবেন না।

৭) আপনার কাজ পরীক্ষা করুন: আপনার পরীক্ষা দেওয়ার আগে আপনার কাজটি ভুলের জন্য পরীক্ষা করে দেখুন। কখনও কখনও, সাধারণ ত্রুটিগুলি আপনাকে পয়েন্ট হারাতে পারে।

 

এখানে আরও কয়েকটি টিপস রয়েছে যা আপনাকে আপনার পরীক্ষায় ভাল নম্বর পেতে সাহায্য করতে পারে:

১) কঠিন ধারণাগুলি পর্যালোচনা করুন: যদি এমন কিছু ধারণা থাকে যা আপনার কাছে বিশেষভাবে চ্যালেঞ্জিং মনে হয় তবে সেগুলি পর্যালোচনা এবং অনুশীলন করার জন্য অতিরিক্ত সময় ব্যয় করতে ভুলবেন না।

২) পর্যালোচনা সেশনে যোগ দিন: অনেক অধ্যাপক এবং শিক্ষক সহকারী পরীক্ষার আগে পর্যালোচনা সেশন অফার করে। এই অধিবেশনগুলিতে যোগ দেওয়া উপাদান সম্পর্কে আরও ভাল বোঝার এবং বিভ্রান্তির যে কোনও ক্ষেত্রকে স্পষ্ট করার একটি দুর্দান্ত উপায় হতে পারে।

৩) অধ্যয়ন সহায়ক ব্যবহার করুন: ফ্ল্যাশকার্ড, অধ্যয়ন নির্দেশিকা এবং অনলাইন সংস্থানগুলির মতো অনেকগুলি বিভিন্ন অধ্যয়ন সহায়ক উপলব্ধ রয়েছে, যা আপনাকে উপাদান পর্যালোচনা করতে এবং ধরে রাখতে সাহায্য করতে পারে। আপনার জন্য সবচেয়ে ভাল কাজ করে এমন অধ্যয়ন সহায়কগুলি খুঁজুন এবং সেগুলি আপনার সুবিধার জন্য ব্যবহার করুন।

৪) সক্রিয় শেখার অনুশীলন করুন: সক্রিয় শেখার কৌশলগুলি, যেমন উপাদানটির সংক্ষিপ্তকরণ, এটি অন্য কাউকে শেখানো, বা একটি অধ্যয়ন দলের সাথে আলোচনা করা, আপনাকে তথ্যটি আরও ভালভাবে বুঝতে এবং মনে রাখতে সাহায্য করতে পারে।

৫) আপনার সময় কার্যকরভাবে পরিচালনা করুন: একটি অধ্যয়নের সময়সূচী তৈরি করুন যা আপনাকে সমস্ত উপাদানকে একটি পরিচালনাযোগ্য উপায়ে কভার করতে দেয়। আপনার সময়সূচীতে থাকুন এবং বিলম্ব এড়াতে চেষ্টা করুন।

 আরও কয়েকটি টিপস রয়েছে যা আপনাকে আপনার পরীক্ষায় ভাল নম্বর পেতে সাহায্য করতে পারে:

১) সংগঠিত থাকুন: আপনার নোট এবং উপকরণগুলি সংগঠিত রাখুন যাতে আপনার যখন প্রয়োজন হয় তখন আপনি যা প্রয়োজন তা সহজেই খুঁজে পেতে পারেন। এতে আপনার সময় বাঁচবে এবং চাপ কমবে।

২) সাহায্য চাইতে ভয় পাবেন না: আপনি যদি উপাদানের সাথে লড়াই করে থাকেন তবে সাহায্য চাইতে ভয় পাবেন না। আপনার অধ্যাপক, একজন শিক্ষক সহকারী বা একজন শিক্ষকের সাথে কথা বলুন। তারা আপনাকে সফল সাহায্য করার জন্য আছে.

৩) পরীক্ষার নির্দেশাবলী মনোযোগ সহকারে পর্যালোচনা করুন: পরীক্ষা শুরু করার আগে নির্দেশাবলী পড়তে এবং বুঝতে ভুলবেন না। এটি আপনাকে আপনার কাছ থেকে কী প্রত্যাশিত তা জানতে এবং সেই অনুযায়ী আপনার সময় পরিকল্পনা করতে সহায়তা করবে।

৪) নিজেকে গতি দিন: কোনো একটি প্রশ্নে বেশি সময় ব্যয় করবেন না। পরিবর্তে, নিজেকে গতিশীল করার চেষ্টা করুন যাতে পুরো পরীক্ষাটি সম্পূর্ণ করার জন্য আপনার যথেষ্ট সময় থাকে।

৫) একটি ইতিবাচক মনোভাব রাখুন: নিজেকে এবং পরীক্ষায় ভাল করার ক্ষমতার উপর বিশ্বাস রাখুন। একটি ইতিবাচক মনোভাব আপনাকে আপনার সেরাটা পারফর্ম করতে সাহায্য করার জন্য অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারে।

 

 পরীক্ষায় ভাল নম্বর পেতে আরও কয়েকটি টিপস 

১) নির্মূলের প্রক্রিয়া ব্যবহার করুন: আপনি যদি বহুনির্বাচনী প্রশ্নের উত্তর সম্পর্কে অনিশ্চিত হন, তাহলে আপনার জানা ভুল উত্তর পছন্দগুলি বাদ দেওয়ার চেষ্টা করুন। এটি আপনার সঠিক উত্তর অনুমান করার সম্ভাবনা বাড়িয়ে দিতে পারে।

২) প্রথমে সবচেয়ে সহজ প্রশ্নের উত্তর দিন: আপনি যে ক্রমানুসারে প্রশ্নের উত্তর দেবেন সেই ক্রম বেছে নেওয়ার অনুমতি থাকলে, আপনি যেগুলোর উত্তর জানেন সেগুলো দিয়ে শুরু করুন। এটি আপনাকে আত্মবিশ্বাস বাড়াবে এবং আপনাকে একটি ভাল ছন্দে পেতে সাহায্য করবে।

৩) আপনার উত্তরগুলি অপ্রয়োজনীয়ভাবে পরিবর্তন করবেন না: গবেষণায় দেখা গেছে যে লোকেরা প্রায়শই প্রথমবার উত্তর দেওয়ার সময় একটি প্রশ্ন পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। আপনি যদি একটি উত্তর সম্পর্কে অনিশ্চিত হন এবং এটি পরিবর্তন করার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে আপনার এটি ভুল হওয়ার সম্ভাবনা বেশি হতে পারে।

৪) বিক্ষিপ্ত বন্ধুদের সাথে অধ্যয়ন করা এড়িয়ে চলুন: বন্ধুদের সাথে অধ্যয়ন করা লোভনীয় হতে পারে, কিন্তু যদি তারা একটি বিভ্রান্তি হয়, তাহলে আপনার নিজের অধ্যয়ন করা আরও ফলদায়ক হতে পারে। একটি শান্ত, বিভ্রান্তি-মুক্ত অবস্থান খুঁজুন যেখানে আপনি মনোনিবেশ করতে পারেন।

৫) স্মৃতি সংক্রান্ত ডিভাইসগুলি ব্যবহার করুন: স্মৃতির যন্ত্রগুলি, যেমন সংক্ষিপ্ত শব্দ বা মেমরির কৌশলগুলি আপনাকে তালিকা বা জটিল তথ্য মনে রাখতে সাহায্য করতে পারে। উপাদানটি ধরে রাখতে সাহায্য করার জন্য আপনার নিজস্ব স্মৃতি সংক্রান্ত ডিভাইস তৈরি করার চেষ্টা করুন।

 

পরীক্ষায় ভালো নম্বর:পরীক্ষার খাতায় লেখার নিয়ম কি?

পরীক্ষার খাতায় লেখার জন্য কয়েকটি সাধারণ নিয়ম রয়েছে যা আপনার অনুসরণ করা উচিত:

পরীক্ষা প্রক্টর বা শিক্ষক দ্বারা প্রদত্ত কোনো নির্দিষ্ট নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।

সুস্পষ্টভাবে এবং কলমে লিখুন। নীল বা কালো কালি ব্যবহার করুন, কারণ এগুলি সাধারণত পড়া সবচেয়ে সহজ।

পুরো পৃষ্ঠাটি ব্যবহার করুন, তবে প্রান্তের চারপাশে মার্জিন ছেড়ে দিন।

উপরের ডানদিকে কোণায় পৃষ্ঠাগুলি সংখ্যা করুন।

পৃষ্ঠার শুধুমাত্র একপাশে লিখুন।

যদি আপনি একটি সংশোধন করতে চান, ভুল মাধ্যমে একটি লাইন আঁকুন এবং এটি উপরে বা নীচে পরিষ্কারভাবে সংশোধন লিখুন.

মার্জিনে বা পৃষ্ঠার পিছনে লিখবেন না।

এমন কোনো নোট বা মন্তব্য লিখবেন না যা বিঘ্নিত বা অনুপযুক্ত বলে বিবেচিত হতে পারে।

এই নিয়মগুলি অনুসরণ করলে আপনার পরীক্ষার খাতাটি সংগঠিত হবে এবং পড়তে সহজ হবে। যা আপনার উত্তরগুলি বুঝতে এবং আপনার কাজের জন্য আপনাকে ক্রেডিট দিতে পারবে ।

পরীক্ষার খাতায় লেখার সময় এখানে আরও কয়েকটি বিষয় বিবেচনা করতে হবে:

১) প্রশ্নগুলি মনোযোগ সহকারে পড়ুন এবং লিখতে শুরু করার আগে আপনি কী জিজ্ঞাসা করা হচ্ছে তা বুঝে নিন।

২) পরীক্ষার নির্দেশাবলী অন্যথায় উল্লেখ না করলে প্রশ্নগুলি যেভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে সেই ক্রমে উত্তর দিন।

৩) আপনি লেখা শুরু করার আগে একটি রূপরেখা বা পরিকল্পনা করুন। এটি আপনাকে আপনার চিন্তাগুলি সংগঠিত করতে এবং আপনি সমস্ত প্রয়োজনীয় পয়েন্টগুলি কভার করেছেন তা নিশ্চিত করতে সহায়তা করতে পারে।

৪) মনোযোগী থাকুন এবং বিভ্রান্ত হওয়া এড়িয়ে চলুন। আপনার সময়কে বুদ্ধিমানের সাথে ব্যবহার করা এবং আপনি আপনার সামর্থ্য অনুযায়ী প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন তা নিশ্চিত করা গুরুত্বপূর্ণ।

৫) পরিষ্কার এবং সংক্ষিপ্ত ভাষা ব্যবহার করুন। অপ্রয়োজনীয় শব্দ ব্যবহার বা আপনার উত্তর খুব দীর্ঘ করা এড়িয়ে চলুন.

৬) সঠিক ব্যাকরণ এবং বানান ব্যবহার করুন। আপনি যদি একটি শব্দের সঠিক বানান সম্পর্কে অনিশ্চিত হন তবে এটিকে উচ্চারণগতভাবে বানান করার চেষ্টা করুন বা একটি প্রতিশব্দ ব্যবহার করুন যা আপনি কীভাবে বানান করতে জানেন।

৭) আপনার কাজ শেষ হলে পরীক্ষা করুন। নিশ্চিত করুন যে আপনি সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন এবং আপনার উত্তরগুলি পরিষ্কার এবং সম্পূর্ণ।

এই নির্দেশিকাগুলি অনুসরণ করলে আপনার ভাল গ্রেড পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি।

পরীক্ষার খাতায় লেখার জন্য এখানে আরও কয়েকটি টিপস রয়েছে:

১) আপনার চিন্তাগুলি সংগঠিত করতে এবং আপনার উত্তরগুলি পড়া সহজ করতে পরিষ্কার শিরোনাম এবং উপশিরোনাম ব্যবহার করুন।

২) আপনার উত্তর আরও সংক্ষিপ্ত এবং অনুসরণ করা সহজ করতে বুলেট পয়েন্ট বা সংখ্যাযুক্ত তালিকা ব্যবহার করুন।

৩) গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট বা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হাইলাইট করুন। এটি আপনাকে আপনার উত্তরের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশগুলিতে জোর দিতে সাহায্য করতে পারে এবং আপনার পরীক্ষায় গ্রেড করা ব্যক্তির পক্ষে আপনার মূল পয়েন্টগুলি বোঝা সহজ করে তুলতে পারে।

৪) আপনার পয়েন্ট ব্যাখ্যা করতে উদাহরণ ব্যবহার করুন. এটি আপনার উত্তরগুলিকে আরও দৃঢ় এবং বোঝা সহজ করতে সাহায্য করতে পারে।

৫) এমন শব্দবাজি বা প্রযুক্তিগত ভাষা ব্যবহার করা এড়িয়ে চলুন যার সাথে আপনার পরীক্ষায় গ্রেডিং করা ব্যক্তি পরিচিত নাও হতে পারে।

পরীক্ষার জন্য উপযুক্ত টোন ব্যবহার করুন।

৬) পরীক্ষার জন্য উপযুক্ত টোন ব্যবহার করুন। পরীক্ষা আনুষ্ঠানিক হলে, আপনার লেখায় একটি আনুষ্ঠানিক স্বন ব্যবহার করতে ভুলবেন না। পরীক্ষা আরও নৈমিত্তিক হলে, আপনি আরও স্বাচ্ছন্দ্য টোন ব্যবহার করতে পারেন।

এই টিপসগুলি অনুসরণ করে, আপনি আপনার পরীক্ষার উত্তরগুলিকে আরও উন্নত করতে পারেন এবং ভাল গ্রেড পাবেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *